• শিরোনাম

    কক্সবাজার-১ আসন

    শেখ হাসিনার নির্দেশে নৌকা ও উন্নয়নের প্রচারণা শুরু করলেন জাফর আলম

    নিজস্ব প্রতিবেদক, চকরিয়া | ২৭ অক্টোবর ২০১৮ | ১২:৪০ পূর্বাহ্ণ

    শেখ হাসিনার নির্দেশে নৌকা ও উন্নয়নের প্রচারণা শুরু করলেন জাফর আলম

    একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কক্সবাজার-১ আসনে নৌকায় ভোট চেয়ে এবং উন্নয়নের প্রচারণা শুরু করে দিয়েছেন আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থী চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আলম। সম্প্রতি গণভবনে সাক্ষাতের সময় দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার নির্দেশ পেয়ে গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে পৌরশহর চিরিঙ্গার সোসাইটি জামে মসজিদের সামনে থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এই প্রচারণা শুরু করেন জাফর আলম। প্রচারণা চালানোর সময় সাধারণ মানুষের মাঝে শেখ হাসিনার সামাল পৌঁছে দিয়ে নৌকায় ভোট চান তিনি। জাফর আলমের প্রচারণা শুরুর খবরে হুমড়ি খেয়ে পড়েন সাধারণ মানুষ। এ সময় দলীয় নেতাকর্মীরাও জাফর আলমের সঙ্গে ছিলেন। এর আগেও তিনি দুই উপজেলা চকরিয়া ও পেকুয়ায় ব্যাপক গণসংযোগ করেন। এ সময় জাফর আলম জনগণের মাঝে সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকা-ের ফিরিস্তি প্রচারপত্র বিলির মাধ্যমে তুলে ধরেন এবং নৌকায় ভোট চান।
    উল্লেখ্য, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জাফর আলমকে কক্সবাজার-১ আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু এই আসন মহাজোটভুক্ত শরিক দল জাতীয় পার্টিকে (এরশাদ) ছেড়ে দেওয়া হয়। এর পর বিনাপ্রতিদ্বন্ধিতায় এমপি নির্বাচিত হন জাতীয় পার্টির মৌলভী মোহাম্মদ ইলিয়াছ।
    চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘একসময়ের বিএনপির দুর্গ চকরিয়া ও পেকুয়ায় বর্তমানে নৌকার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। গত দশবছর ধরে জাফর আলমের নেতৃত্বে আওয়ামীলীগের তৃণমূল নেতাকর্মীরা এই অসাধ্য সাধন করেছেন। সম্প্রতি দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নির্বাচনী প্রচার যাত্রাদলটি কক্সবাজার যাওয়ার সময় চকরিয়া পৌরবাস টার্মিনাল মাঠের লাখো মানুষের জনসভা দেখে অভিভূত হয়েছেন। এ সময় কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত জনতাকে আশ্বস্ত করেন কক্সবাজার-১ আসনে এবারের নির্বাচনে আওয়ামীলীগ থেকে প্রার্থী দেওয়ার এবং যার জনপ্রিয়তা বেশি তাকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে। এতে চকরিয়া ও পেকুয়ার তৃণমূল নেতাকর্মীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও আশায় বুক বেঁধেছে স্বাধীনতার পর এই আসনটি শেখ হাসিনাকে উপহার দেওয়ার।’
    পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস আগামী নির্বাচনে এই আসন আর জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেওয়া হবে না। এখানে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে চকরিয়া-পেকুয়ার গণমানুষের নেতা জাফর আলমকেই মনোনয়ন দেওয়া হবে। কেন্দ্রের এমন নির্দেশনা থাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে নৌকার প্রচারণায় জাফর আলমের নেতৃত্বে আমরা মাঠে নেমেছি। ইতোমধ্যে পেকুয়া সদর ইউনিয়নসহ আশপাশের কয়েকটি ইউনিয়নে গণসংযোগ করার সময় সাধারণ মানুষ উপড়ে পড়ে নৌকার পক্ষে।’ দলীয় সূত্র জানায়, জাফর আলম দলের হাল ধরার পর থেকে প্রতিনিয়ত সাধারণ মানুষের কাতারে থেকে আওয়ামীলীগের রাজনীতি করছেন। গত দশবছর ধরে তিনিই মাঠ দখলে রেখেছেন আওয়ামীলীগের রাজনীতির। তাই কেন্দ্রের নির্দেশনায় অনেক আগে থেকেই চকরিয়ার ১৮ ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এবং পেকুয়া উপজেলার সাত ইউনিয়নে গণসংযোগ শুরু করেন জাফর আলম।
    এই আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাফর আলম বলেন, ‘দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে আমার নাম কেন্দ্র থেকে ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু জাতীয় পার্টিকে এই আসন ছেড়ে দেওয়ায় মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নিই দলের প্রধান জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে। ওইসময় আমাকে আশ্বস্ত করা হয়েছিল, একাদশ সংসদ নির্বাচনে দল থেকে আমাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। গত বুধবার দলের প্রধান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতকালে আমাকে মাঠে নেমে পড়ার নির্দেশ দেন। সেই মোতাবেক আজ (গতকাল) থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে নৌকায় ভোট চেয়ে এবং উন্নয়নের প্রচারণা শুরু করেছি। এ সময় সাধারণের কাছে শেখ হাসিনার সালামও পৌঁছে দিচ্ছি। জাফর আলম বলেন, ‘এলাকার উন্নয়ন ও জনগণের কল্যাণ করাই আমার রাজনীতি। তাই চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার জনগণ আমার প্রাণ। আগামী নির্বাচনে তাদের ভালবাসায় আমি এগিয়ে যেতে চাই এবং এই আসন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উপহার দিতে চাই।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ