বৃহস্পতিবার ১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ২৭শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জানুয়ারি থেকে টিউশন ফি দেবে সরকার

দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক   |   বুধবার, ০২ অক্টোবর ২০১৯

ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের জানুয়ারি থেকে টিউশন ফি দেবে সরকার

দেশের মাধ্যমিক-পর্যায়ের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষার্থীর টিউশন ফি দেবে সরকার। তবে, প্রথম দফায় আগামী বছরের (২০২০) জানুয়ারি থেকে ষষ্ট শ্রেণির শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সপ্তম, অষ্টম, নবম ও দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদেরও টিউশন ফি দেবে সরকার। সবার জন্য শিক্ষা নিশ্চিত করাসহ শিক্ষার মানোন্নয়নের পদক্ষেপের অংশ হিসেবে এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। কত টাকা লাগবে, কত প্রতিষ্ঠান ও কত শিক্ষার্থী রয়েছে তার হিসাব করা হচ্ছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে।’

প্রথম দফায়ই দশম শ্রেণি পর্যন্ত টিউশন ফি দেওয়া হবে কি না—জানতে চাইলে মো. সোহরাব হোসেন বলেন, ‘একবারে এত টাকা অর্থ বিভাগ দিতে চাইবে না। পর্যায়ক্রমে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।’

এই প্রসঙ্গে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক (মাধ্যমিক) অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান বলেন, ‘আগামী জানুয়ারি থেকে ষষ্ট শ্রেণির সব শিক্ষার্থীর টিউশন ফি সরকার দেবে। সেই পরিকল্পনা নিয়ে কাজ চলছে। শিক্ষার্থীদের ব্যয়ের হিসাব মিলিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বিষয়টি চূড়ান্ত হলে ষষ্ট শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মাসিক বেতন দেওয়া শুরু হবে। তবে, অন্যান্য ফি শিক্ষার্থীদেরই দিতে হবে।’

ষষ্ট শ্রেণির শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি জানুয়ারিতে দেওয়া শুরু করা যাবে কিনা—জানতে চাইলে অধ্যাপক মান্নান বলেন, ‘জানুয়ারি থেকে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করা হচ্ছে। তবে, বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। চূড়ান্ত করতে সময় লাগবে।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জানুয়ারিতে শুরু করা না গেলেও ২০২০ সালের মধ্যেই শুরু করবে সরকার। এর আগেও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি মাধ্যমিক পর্যায়ের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষার্থীর টিউশন ফি দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শতভাগ শিক্ষার্থীর উপস্থিতি ও গুণগত মানোন্নয়নে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। শিক্ষকদের প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন কর্মসূচি ইতোমধ্যে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। মাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি দেওয়ার কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয় অনেক আগেই। সর্বশেষ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কম টাকায় দুপুরের খাবার কর্মসূচি চালুর উদ্যোগ নেওয়া হয়। এর ধারাবাহিকতায় গত রবিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সিলেটের ১৪টি বিদ্যালয়ে মিড-ডে মিল কর্মসূচির উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। পর্যায়ক্রমে সারাদেশে এই কর্মসূচি চালু করতে শিক্ষা সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এসব কর্মসূচি বাস্তবায়নকালেই বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সব শিক্ষার্থীর টিউশন ফি দেওয়ার পরিকল্পনা হাতে নেয় সরকার।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের পরিচালক অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান বলেন, ‘গ্রামের অনেক মানুষ রয়েছেন, যারা টিউশন ফি বেশির কারণে তাদের পছন্দের স্কুলে সন্তানকে পড়াতে পারেন না।’ টিউশন ফি দেওয়ার দরকার না হলে শিক্ষার্থীরা পছন্দমতো বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতে পারবে বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

দেশবিদেশ/নেছার

Comments

comments

Posted ৯:৪৮ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০২ অক্টোবর ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com