• শিরোনাম

    সেন্ট মার্টিনে পর্যটকের ঢল

    জসিম উদ্দিন টিপু, টেকনাফ | ২৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২:০০ পূর্বাহ্ণ

    সেন্ট মার্টিনে পর্যটকের ঢল

    প্রবালদ্বীপ সেন্ট মার্টিনে দেশী বিদেশী পর্যটকের ঢল নেমেছে। সরকারী ছুটি এবং বছরের শেষ দিন উদযাপন করতে পরিবার এবং নিকটজনদের নিয়ে পর্যটকেরা ছুটে আসছেন সেন্ট মার্টিনে। রাত্রিকালীন সমুদ্রের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য,ভোরের নির্মল হাওয়া উপভোগ,দ্বীপের নীল জলরাশি,শৈবাল,প্রবাল এবং জীবন্ত কোরাল দর্শনে নদী-সাগর পাড়ি দিয়ে হাজারো পর্যটক এখন সেন্ট মার্টিনে অবস্থান করছেন। ইতিমধ্যে দ্বীপের শতাধিক আবাসিক হোটেল এবং কটেজসমুহ পর্যটকে ভরপুর হয়ে গেছে। সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমদের সমুদ্র বিলাসের পরিচালক পাপন খাঁন জানান,বছরের শেষ দিন উদযাপন করতে আগে থেকে ভ্রমণ পিপাসু পর্যটকেরা সেন্ট মার্টিনের হোটেল এবং কটেজে বুকিং দিয়ে রেখেছেন। এমনকি হোটেল-কটেজ পরিপূর্ণ হলে হাজারো পর্যটক সৈকতের বালিয়াডিতে রাত কাটাবেন বলেন তিনি জানান। সেন্ট মার্টিন ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান জানান, প্রতি বছর কয়েক হাজার পর্যটক বছরের শেষ দিন উদযাপন করতে সেন্ট মার্টিনে ছুটে আসেন। নৌ ভ্রমণ এবং দ্বীপে রাত যাপনের মজাই আলাদা। বিশেষ দিনকে স্মরণীয় করে রাখতে পর্যটকরাও নিকটজনদের নিয়ে প্রবালদ্বীপে এসে থাকেন। প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও পর্যটকদের বাড়তি চাপ লক্ষ্য করা গেছে। গতকাল মঙ্গলবার,কেয়ারী সিন্দাবাদ,কেয়ারী ক্রুজ এন্ড ডাইন,এলসিটি কুতুবদিয়া,গ্রীণ লাইন,দোয়েল পাখি,এমভি ফারহান,পারিজাত,আটলান্টিকসহ স্পীড বোটে করে পর্যটকেরা সেন্ট মার্টিনে এসেছেন। এদের অনেকে দিনে এসে দিনে সেন্ট মার্টিন ছেড়ে চলে এসেছেন। বেশীর ভাগ পর্যটক একান্তে বছরের শেষ দিন উদযাপন করতে প্রবালদ্বীপে অবস্থান করছেন। রাত্রিকালীন সেন্ট মার্টিনের সৌন্দর্য্য উপভোগ,বড় দিন এবং বছরের শেষ দিন উদযাপনে আজও অনেক পর্যটক প্রবালদ্বীপে আসার অপেক্ষায় রয়েছেন। ‍

    কুমিল্লা থেকে প্রবালদ্বীপে বেড়াতে আসা পর্যটক আলফাজ উদ্দিন জানান, সেন্ট মার্টিন দ্বীপে রাতযাপন করার শখ ছিল দীর্ঘ দিনের। বছরের শেষ দিন উদযাপন করতে পরিবার নিয়ে প্রবালদ্বীপে ছুটে এসেছি। সেন্ট মার্টিন হোটেল কটেজ মালিক সমিতি ও দ্বীপ আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: মুজিবুর রহমান জানান, থার্টি ফাস্ট নাইট উদযাপন করতে ভ্রমণ পিপাসু পর্যটকেরা প্রতিবছর সেন্ট মার্টিনে আসেন। এবছর তার ব্যতিক্রম হবেনা। দ্বীপের হোটেল-কটেজ মালিক সমিতি সব সময়ই পর্যটকদের সর্বোচ্চ সেবা প্রদানে বদ্ধ পরিকর। সেন্ট মার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান আলহাজ্ব নুর আহমদ জানান, থার্টি ফাস্ট নাইট উদযাপন করতে সাত হাজারেরও বেশী পর্যটক দ্বীপে এসেছেন। বছরের শেষ দিনকে স্মৃতিময় করতে এসব পর্যটক আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত প্রবালদ্বীপে অবস্থান করবেন। অনেক পর্যটক হোটেল-কটেজে জায়গা না পেয়ে ইতিমধ্যে তাঁবু ভাড়া নিয়েছেন। যারা নিকট জনদের নিয়ে সৈকতের বালিয়াডিতে রাত কাটাবেন। টেকনাফস্থ ট্যুরিষ্ট পুলিশের উপ পুলিশ পরিদর্শক মো: আনোয়ার হোসাইন জানান,পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তা দিতে প্রতিদিন পুলিশ কাজ করছে। বিশেষ দিন পর্যটকরা যেন উদযাপন করতে পারেন সেই জন্য তিন স্তরের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশী তৎপরতা অব্যাহত আছে। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম সাইফ জানান, সেন্ট মার্টিনে পর্যটকরা যাতে নির্বিঘেœ অবস্থান করতে পারে সে জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। দ্বীপে অবস্থানকারী পর্যটকদের সুবিধার্থে প্রশাসনের বাড়তি নজরদারীর পাশাপাশি সেখানকার জনপ্রতিনিধিদেরও সর্তক থাকার নির্দেশনা দেওয়া আছে।

    দেশবিদেশ/নেছার

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে দৈনিক আজকের দেশ বিদেশ