মঙ্গলবার ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সৈকতে ট্রলারসহ ৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার: জীবিত ২ জন ঃ নিখোঁজ ৯ জেলে

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯

সৈকতে ট্রলারসহ ৬ জনের মৃতদেহ উদ্ধার: জীবিত ২ জন ঃ নিখোঁজ ৯ জেলে

কক্সবাজার শহরের সমুদ্র উপকুলের বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে মাছ ধরার ট্রলারসহ ৬ জনের মৃতদেহ পাওয়া গেছে। মাঝিসহ জীবিত উদ্ধার হয়েছে ২ জন। আরও নিখোঁজ রয়েছে ৯ জেলে। ১০ জুলাই ভোর ৫ থেকে সকাল ১০ টার মধ্যে ৬ জনের মৃতদেহ পাওয়া যায়।
কক্সবাজার ট্যুরিস্ট পুলিশের এএসপি ফখরুল করিম জানান, বুধবার ভোর সাড়ে ৪ টার দিকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে ভাঙাচোরা একটি মাছ ধরার ট্রলার ভেসে আসার খবর পাওয়া যায়। পরে ট্যুরিস্ট পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গেলে প্রথমে ট্রলারটির আশপাশে চারটি মরদেহ ভাসমান অবস্থায় এবং পরে সকাল ৮ টার দিকে আরও দু’টি মরদেহ ট্রলারের পাটাতনের ওপর পাওয়া যায়।
অন্যদিকে সকাল ৬ টার দিকে সৈকতের ডায়বেটিস হাসপাতাল পয়েন্ট থেকে একজন ও নাজিরার টেক থেকে একজন জেলেকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করে লাইফ গার্ডের উদ্ধার কর্মী ও এলাকাবাসী। লাইফ গার্ডের উদ্ধার কর্মী রশিদ আহমদ জানান, লাবনী পয়েন্টের তীরবর্তি সমুদ্রে ভাসমান অবস্থায় একজনকে উদ্ধার করা হয়। তখন সে বেঁচে ছিল, জ্ঞান ছিল তার। একই ভাবে এলাকাবাসী নাজিরার টেক থেকে একজন উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সমুদ্রের সাথে লড়াই করে বেঁচে যাওয়া ভাগ্যবান দুই জন হচ্ছেন, মনির মাঝি , পিতা- মুগুল সর্দার অন্যজন হচ্ছেন মো: জুয়েল, পিতা- ওয়াজ উদ্দিন ফিটার। দুই জনই হচ্ছেন ভোলার চরফেশনের পূর্ব মাদ্রাজ পাড়ার বাসিন্দা। তাদের মধ্যে মনির মাঝি হচ্ছেন এই ট্রলারের মাঝি আর মো: জুয়েল হচ্ছেন ট্রলারের মালিকের ছেলে।
তারা জানান, গত ৪ জুলাই (বৃহস্পতিবার) ভোলা চরফেশনের শামরাজ ঘাট থেকে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে সাগরে পাড়ি দেয়। তারা মোট ১৭ জন এই ট্রলারে ছিলেন। গত ৬ জুলাই (শনিবার) ভোরে হঠাৎ ঝড়ো হাওয়া ও উত্তাল ঢেউয়ের কবলে পড়ে ট্রলারটি উল্টে যায়। এরপর কে কোথায় হারিয়ে গেছে তা জানা যায়নি। এসময় মনির মাঝি ও মো; জুয়েল ট্রলার ধরে রাখেন। সাগরের ঢেউয়ের ধাক্কায় একবার ট্রলার থেকে ছিটকে পড়ে , আবার ধরে। এভাবে তারা তিন দিন ট্রলার ধরে বাঁচার চেষ্টা করেন। পরে উত্তাল ঢেউয়ের ধাক্কায় ট্রলার থেকে ছিটকে দূরে চলে যায় দুইজন। এর পর তারা সাগরে ভেসে থাকার চেষ্টা করে। একসময় সাগরের তীরের পৌছলে কক্সবাজারের স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে এসে তাদের ৬ জন জেলের মৃতদেহ পাওয়ার খবর পাই। তারা জানান, ট্রলারে ফয়জুল্লাহ, জিয়াদ, সেলিম মিস্ত্রি, বেলায়েত, তৌসিফ, জাহাঙ্গীর, মাসুদ, ওলিউল্লাহসহ তারা ১৭ জন ছিলেন।
কক্সবাজার মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো: খাইরুজ্জামান জানান, খবর পেয়ে এসব লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
এই ঘটনার খবর পেয়ে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ এম মাহফুজুর রহমান সদর হাসপাতালে জীবিত উদ্ধার হওয়া দুই জেলেকে দেখতে যান। তিনি জানান, তাদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা হয়েছে। আর যারা এখনো নিখোঁজ রয়েছে তাদের সন্ধান করা হচ্ছে। মৃতদেহ গুলো পরিবারের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে।

Comments

comments

Posted ১:১৭ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০১৯

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com