মঙ্গলবার ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ | ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সোনালি বেন্দ্রের পাশে অক্ষয়

দেশবিদেশ অনলাইন ডেস্ক   |   শুক্রবার, ০৬ জুলাই ২০১৮

সোনালি বেন্দ্রের পাশে অক্ষয়

অক্ষয় কুমার ও সোনালি বেন্দ্রে একটি টুইট বার্তায় সোনালি বেন্দ্রে জানিয়েছেন, তাঁর শরীরে হাই-গ্রেড ক্যানসার ধরা পড়েছে, যেটা এর উৎপত্তিস্থল থেকে ছড়িয়ে পড়েছে। আর তা কেউ বুঝতেই পারেনি। হালকা একটু ব্যথা নিয়ে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করিয়ে জানতে পারেন অনাকাঙ্ক্ষিত ক্যানসারের কথা। এরপর থেকে পরিবার, ঘনিষ্ঠজন আর বন্ধুদের সঙ্গে আছেন তিনি। গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক থেকে টুইটারে লিখেছেন তিনি। চিকিৎসার জন্য এখন তিনি নিউইয়র্কে আছেন। তাঁর সঙ্গে আছে তাঁর পরিবার।

চিকিৎসকদের মতে, সোনালি বেন্দ্রের দেহে ক্যানসার এখন চতুর্থ স্টেজে রয়েছে। আর তা মোটেও ভালো নয়। এরই মধ্যে তা শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে পড়েছে।

বলিউডের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রীর দুঃসময়ে তাঁর পাশে গিয়ে দাঁড়িয়েছেন আরেক বলিউড তারকা অক্ষয় কুমার। খবর পেয়ে মুম্বাই থেকে তিনি নিউইয়র্কে ছুটে যান। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সবাই জানার দুই দিন আগেই তিনি পৌঁছে যান বন্ধুর কাছে। জানা গেছে, অক্ষয় কুমার এ সময় সোনালি বেন্দ্রেকে সাহস দিয়েছেন। তাঁকে লড়াইয়ের জন্য উৎসাহ দেন। পরে সংবাদমাধ্যমকে অক্ষয় জানিয়েছেন, সোনালি অত্যন্ত লড়াকু মানসিকতার। তাই তিনি নিশ্চিত এই লড়াইয়ে সোনালি জয়ী হবেন।

অক্ষয় কুমার ও সোনালি বেন্দ্রে একসঙ্গে বলিউডে পাঁচটি ছবি করেছেন। শেষ তাঁদের একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল ২০১৩ সালে, ‘ওয়ান্স আপন আ টাইম ইন মুম্বাই দোবারা’ ছবিতে। এ ছাড়া ‘সাপুত’, ‘তারাজু’, ‘কিমাত’, ‘অঙ্গারে’ ছবিতে একসঙ্গে অভিনয় করেছেন তাঁরা।
টুইট বার্তার সঙ্গে এই ছবিটি পোস্ট করেছেন সোনালি বেন্দ্রে চিকিৎসা প্রসঙ্গে সেই টুইট বার্তায় সোনালি লিখেছেন, ‘এই পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য দ্রুত উন্নত চিকিৎসা নেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। আমি চিকিৎসকের পরামর্শে তা-ই করছি।’ বিবৃতির শেষে সোনালি লেখেন, ‘আমি এই যুদ্ধ চালিয়ে যাব। আমি জানি, এই যুদ্ধে আমার শক্তি হয়ে পাশে থাকবে আমার পরিবার ও বন্ধুরা।’
সোনালি বেন্দ্রের প্রথম ছবি ‘আগ’ মুক্তি পায় ১৯৯৪ সালে। এই ছবির জন্য তিনি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার পান। এরপর ২০১৩ সাল পর্যন্ত তিনি অর্ধশতাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন। তাঁর বেশির ভাগ ছবি ব্যবসাসফল হয়েছে। অভিনয় করেছেন তামিল, তেলেগু, মারাঠি আর কান্নাড়া ভাষার ছবিতে। ‘বোম্বে’ ছবির ‘হাম্মা হাম্মা’ গানের সঙ্গে নেচে সবার নজরে পড়েন তিনি। এরপর ‘দিলজ্বলে’, ‘ভাই’, ‘ডুপ্লিকেট’, ‘মেজর সাহাব’, ‘জখম’, ‘সারফারোশ’, ‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’-এর মতো ছবি দিয়ে তিনি জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। এ ছাড়া তিনি দুটি রিয়েলিটি শোর বিচারক হয়েছেন—লাইফ ওকে চ্যানেলে ‘আজিব দস্তান হ্যায় ইয়ে’ আর জি টিভির ‘ইন্ডিয়াস বেস্ট ড্রামেবাজ’।

দেড় দশক আগে তেলেগু ছবি ‘শঙ্করদাদা এমবিবিএস’-এর পর প্রায় অন্তরালে চলে যান সোনালি বেন্দ্রে। বিবাহিত জীবনে সন্তানসম্ভবা হতেই পুরোপুরি সংসারজীবনে নিজেকে বেঁধে ফেলেন।

বলিউডের চলচ্চিত্র পরিচালক গোল্ডি বহেলকে ২০০২ সালে বিয়ে করেন সোনালি বেন্দ্রে। তাঁদের ১৩ বছরের একটি ছেলে আছে। সম্প্রতি সোনালি বেন্দ্রে জিটিভির ‘ইন্ডিয়াস বেস্ট ড্রামেবাজ’ নামের একটি রিয়েলিটি শোর বিচারক হিসেবে কাজ করছিলেন। কিন্তু ক্যানসার ধরা পড়তেই এ অনুষ্ঠান থেকে অব্যাহতি নেন তিনি। তাঁর জায়গায় এখন বিচারকের আসনে বসেছেন অভিনেত্রী হুমা কুরেশি।
দেশবিদেশ /০৬ জুলাই ২০১৮/নেছার

Comments

comments

Posted ৭:৫৭ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ০৬ জুলাই ২০১৮

ajkerdeshbidesh.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক : তাহা ইয়াহিয়া কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
০১৮১২-৫৮৬২৩৭
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com